পযর্টন উন্নয়ন ও সার্বিক কর্মকান্ড সংক্রান্ত এক মত বিনিময় সভা

২০-০৬-২০১৮ তারিখ বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন এর হোটেল অবকাশে বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পের উন্নয়নে আয়োজিত হয় 'পযর্টন উন্নয়ন ও সার্বিক কর্মকান্ড সংক্রান্ত এক মত বিনিময় সভা। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সম্মানিত সচিব জনাব মোঃ মহিবুল হক। নবনিযুক্ত সম্মানিত সচিবকে বরণ করেন বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন এর সম্মানিত চেয়ারম্যান জনাব আখতারুজ জামান খান কবির। আয়োজিত মতবিনিময় সভায় আরো  উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন এর সম্মানিত পরিচালকবৃন্দ, মন্ত্রণালয়ের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, অত্র সংস্থার মহাব্যবস্থাপক, অধ্যক্ষ, ব্যবস্থাপক ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ। সচিব মহোদয় বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন এর এনএইচটিটিআই এর বিভিন্ন শ্রেণীকক্ষ, লাইব্রেরী, পরিদর্শন শেষে পরবর্তীতে তিনি সাস্থ্যসম্মত খাদ্য প্রস্তুতের বিষয়ে হোটেল অবকাশ এর রন্ধনশালা পর্যবেক্ষণ করেন।  

অনুষ্ঠানের পরিচিতি পর্ব শেষে বাপক চেয়ারম্যান বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন এর বিভিন্ন কর্মকান্ড সম্পর্কে সচিব মহোদয়কে অবহিত করেন। বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন এর ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনা ও বাণিজ্যিক কার্যক্রম পরিচালনা সংক্রান্ত নীতিনির্ধারণী বিষয়ে জনাব আবদুস সবুর মন্ডল, পরিচালক (বাণিজ্যিক/পরিকল্পনা) পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে সকল কার্যক্রম উপস্থাপন করেন। বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন এর নির্মানাধীন প্রধান কার্যালয়ের কাজ আগামী ২০১৯ সালের মধ্যে সম্পন্ন হওয়ার বিষয়ে পরিচালক(বাণিজ্যিক/পরিকল্পনা) সচিব মহোদয়কে অবহিত করেন।

বর্তমান সরকারের গৃহীত কর্মসূচী এবং ভিশন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে করণীয় বিষয়াবলী নিয়ে জনাব মোঃ মহিবুল হক তার বক্তব্য প্রদান করেন। তিনি বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন এর বর্তমান কর্মপরিকল্পনা পর্যবেক্ষণ করেন এবং প্রতিটি বিষয়ের উপর নিজের অভিমত ব্যক্ত করেন। দেশের কক্সবাজারস্থ মোটেল প্রবাল, লাবনী ও খুরুসকুল এর পর্যটন স্থাপনা নির্মাণের বিষয়ে আধুনিক ও দৃষ্টিনন্দন প্রেজেন্টেশন প্রদানের নির্দেশনার দেন। তিনি পর্যটন শিল্পের প্রসারের জন্য সুন্দরবন কেন্দ্রিক পর্যটন স্থাপনা তৈরীর পরিকল্পনার উপর গুরুত্বারোপ করেন। এছাড়াও বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন এর খুলনা (মজগুনী), মংলা, বাগেরহাট, চট্টগ্রাম (পারকী)তে পরিকল্পনাধীন পর্যটন কেন্দ্র স্থাপনের জন্য করণীয় বিষয়াদির উপর আলোকপাত করা হয়। পরিশেষে তিনি হোটেল মোটেল এর খাবারের মান নিয়ন্ত্রণ, সেবার মান বৃদ্ধিকরণ এবং পরিচ্ছন্নতার উপর গুরুত্বারোপ করে সার্বিক কর্মকান্ড সুচারুভাবে পরিচালনার উপর দিক নির্দেশনা প্রদান করেন।